ঈদুল আযহা ২০২১ কত তারিখে?

eid al adha

আপনি কি ২০২১ সালের ঈদুল আযহা কত তারিখে অনুষ্ঠিত হবে সেই তারিখ জানতে আগ্রহী? আপনার আগ্রহের জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে ২০২১ সালের ঈদুল আযহা কত তারিখ অনুষ্ঠিত হবে তার নির্ধারিত তারিখ দিয়ে দিয়েছি। পবিত্র ঈদুল আযহার জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করার জন্য আপনাদের এই তারিখটি জেনে নেওয়া খুবই জরুরী। তাই আমাদের ওয়েবসাইটের নিচে গিয়ে ২০২১ সালের ঈদুল আযহা কত তারিখে অনুষ্ঠিত হবে তা জেনে নিন।

বিশ্বের মুসলিম ধর্মালম্বীদের জন্য ঈদ একটি বড় ধর্মীয় উৎসব। বছরে ২ বার মুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য ঈদ আসে। এই ঈদে আমরা খুব আনন্দ করি এবং মজা করে। একে অন্যের সঙ্গে দেখা হয়। সৌহার্দ্য এবং সম্প্রীতি গড়ে ওঠে। ফলে সম্পর্ক মজবুত হয় এবং সম্পর্কের হতে পারে।

আপনার যদি ২০২১ সালের ঈদুল আযহাতে অনেক প্লান প্রোগ্রাম থাকে তাহলে আপনি তারেক জেনে নিয়ে সেই প্ল্যান এবং প্রোগ্রাম সাজাতে পারেন। তার জন্য আপনাকে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে ২০২১ সালের ঈদুল আযহা কত তারিখ অনুষ্ঠিত হবে তা জেনে নিতে হবে।

ক্যালেন্ডার অনুযায়ী জুলাই ২০ থেকে ২৩ তারিখ প্রযন্ত ঈদুল আযহার ছুটি আসে , তাই বলা যায় ২১ জুলাই পবিত্র ঈদুল আযহা হবে। যদিও চাদ দেখা সাপেক্ষে জানানো হবে।

ঈদুল আযহা বা কোরবানির ঈদ

বিশ্বের সকল মুসলমান 2021 সালে ঈদুল ফিতর পালন করেন এবং তারপর  ২ মাস ১০ দিন দিন পর চলে আসে আরেকটি ঈদ। যেটা ঈদুল আযহা নামে পরিচিত। এই ঈদুল আযহায় মুসলমানরা পশু কুরবান দেয়।। এখন সকল ধর্মপ্রান মুসলমানদের মনে একটি বিষয়ে জানান তীব্র আকাঙ্ক্ষা রয়েছে আর সেটি হল ২০২১ সালের কোরবানির ঈদ কত তারিখে। প্রকৃতপক্ষে চাদ দেখা সাপেক্ষে ঈদের দিন তারিখ হয়ে থাকে। এবারো তাই হবে। আপনাদের চাহিদার কথা বিবেচনা করে আমাদের ওয়েবসাইটে সঠিক তারিখ এবং সময় উল্লেখ করে দিয়েছি।

কোরবানি ঈদের একটি উল্লেখযোগ্য পালনের রীতি হচ্ছে কুরবানী করা। নিজের পছন্দের অর্থাৎ প্রিয় পশুকে কোরবানি করতে হয়। এর মাধ্যমে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন করা যায়। আপনি যদি কোরবানির ঈদে কোরবানি করবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন তবে সেই অর্থ অনুযায়ী আপনাকে পশু কিনতে হবে।

কোরবানির ঈদের সঠিক সময়ে এর মধ্যে কুরবানী দিতে হয়। তাই আগেভাগেই দেখে শুনে পছন্দ মতো পশু কিনতে হয়। তাহলে সেই অনুযায়ী আপনার সুবিধামতো কোরবানির জন্য পশু কিনতে পারবেন। আর যদি আপনার বাড়িতে পৌঁছানো পৌঁছে থাকে তাহলে সেটি হবে সর্বোত্তম উপায়। তাছাড়া কোরবানির ঈদ উপলক্ষে আপনাদের ভেতরে হয়তো অনেক ধরনের পরিকল্পনা থাকতে পারে। সেই পরিকল্পনাগুলো আপনারা কিভাবে বাস্তবায়ন করবেন তা আপনারা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারেন নির্ধারিত তারিখ জেনে নেওয়ার পর।

দিন দিন করোনার প্রভাব বাড়ছেই। আল্লাহ তায়ালা সকলকে করোনার প্রভাব থেকে রক্ষা করুন। সকল মুসলিম ভাইদের ঈদ উদযাপন ও মসজিদে 5 ওয়াক্ত নামাজ পড়ার তৌফিক দান করুন। আমিন।