DNA এর ভৌত গঠন, DNA থেকে RNA তৈরি এবং RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া (চিত্রসহ)

2.59K viewsজীববিজ্ঞান
0

DNA এর ভৌত গঠন, DNA থেকে RNA তৈরি এবং RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া (চিত্রসহ)। এইচএসসি ২০২২ জীববিজ্ঞান ৫ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট সমাধান।

DNA এর ভৌত গঠন, DNA থেকে RNA তৈরি এবং RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া (চিত্রসহ)

Assignment: DNA => RNA => প্রোটিন

এইচএসসি ২০২২ জীববিজ্ঞান ৫ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট উত্তর

DNA এর ভৌত গঠন, DNA থেকে RNA তৈরি এবং RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া (চিত্রসহ)

DNA এর ভৌত গঠন, DNA থেকে RNA তৈরি এবং RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া (চিত্রসহ)

DNA এর ভৌত গঠন, DNA থেকে RNA তৈরি এবং RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া (চিত্রসহ)

DNA এর ভৌত গঠন, DNA থেকে RNA তৈরি এবং RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া (চিত্রসহ)

DNA এর ভৌত গঠন, DNA থেকে RNA তৈরি এবং RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া (চিত্রসহ)

DNA এর ভৌত গঠন, DNA থেকে RNA তৈরি এবং RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া (চিত্রসহ)

DNA এর ভৌত গঠন, DNA থেকে RNA তৈরি এবং RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া (চিত্রসহ)

DNA এর ভৌত গঠন, DNA থেকে RNA তৈরি এবং RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া (চিত্রসহ)

DNA এর ভৌত গঠন, DNA থেকে RNA তৈরি এবং RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া (চিত্রসহ)

১. DNA এর যচিত্র ভেীত গঠন।

জীবের বংশগতির ধারক ও বাহক DNA হলো Deoxynibo Nudeic Acid এর সংক্ষিপ্ত রূপ।

DNA এর ভেীতগঠন নিচে বর্ণনা করা হলোঃ

ক) দুটি পলিনিউক্লিওটাইড সূত্র পরস্পরের সাতে লোহার যিডির মতো ডানদিকে পেঁচানো থেকে DNA ডাবল হেলিক্স গঠন করে।এই মিডির দুইদিকের হাতল নির্মিত হয় ডি-অক্সিরাইবোড স্যুগার ও ফসফেটের র্পযায় ক্রমিক সংযুক্তির মাধ্যমে এবং ধাপগুলো দুটি লাইচ্রোজেন বেস (A=T)এবং (C=G)দিয়ে গঠিত

খ) একটি নিউক্রিওটাইডের স্যুগারের ৫ম কার্বন অনুর সাথে ফসফেট যুক্ত থাকলে অপর নিউক্লিওটাইডের স্যুগার ৩য় কার্বন অনুর সাথে ফসফেট যুক্ত হয়। নিইট্রোজেন বেসটি স্যুগারের ১ম কার্বনের সাথে যুক্ত।

গ) সূত্র দুটি পরস্পরের সমান্তরালে কিন্তু বিপরীতমুখী হয়ে অবস্থান করে। 

ঘ) এক সূত্রের গুয়ানিন অপর সূত্রের সাই টোমিনের সাতে ৩টি হাইড্রোজেন বন্ড দ্বারা যুক্ত এবং এক সূত্রের থ্যাডিনিন অপর সূত্রের থায়া মিনের সাথে দুটি হাইড্রোজেন বন্ড দ্বারা যুক্ত(G=C)এবং (A=T)

ঙ) একটি পূর্নাঙ্গ প্যাঁচ ৩৪A0 দূরত্বে সম্পন্ন হয়। দশটি নিউক্লিওট্রাইড জোডের পর একটি প্যাঁচ সম্পন্ন হয়। প্রতি প্যাঁচে থাকে ২৫টি হাইডোজেন বন্ড।

২. চিত্রসহ DNA থেকে RNA তৈরির প্রক্রিয়া।

একটি DNA হতে RNA সৃষ্টির প্রক্রিয়াকে ট্রান্সক্রিপশন বলে এনডাইমেটিক পদ্ধতিতে DNA টেমপ্লেট স্ট্র্যান্ডের একটি নির্দিষ্ট ক্রম যুক্ত নিউক্লিওটাইডের বিপরীত ক্রমযুক্ত RNA সংশ্লেষিত হয়।

DNA ডাবল হেলিক্সের যে সূত্রটির উপর RNA অনু সৃষ্টি হয় তাকে টেমপ্লেট সূত্র বলে । বিপরীত যে সূত্রটি নিস্ক্রয় তাকে তাকে কোডিং সূত্র বলে।

DNA থেকে RNA সৃষ্টি করাকে ট্রাস্নক্রিপশন প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হয়, তা নিচে বর্ণনা করা হলোঃ

ক) প্রথমে কোর-এনজাইম RNA পলিমা রেজ এর সাতে প্রোমোটর সিগমাফ্যাক্টর যুক্ত হয়ে RNA-polymerase complex সৃষ্টি হয়। সিগমাফ্যাক্টরটি সূচনা বিন্দু র্নিনয় করে। RNA-polymerase এনজাইম DNA এর পাক খুলে RNA সংশ্লেষনের কাজে শুরু করে। টেমপ্লেট সূত্রের পরিপূরক রাইবোনিউক্রিওটাইড যুক্ত হয়ে RNA সংশ্লেষিত হতে থাকে।

খ) টেমপ্লেট সূত্রকে ছাঁচ হিসাবে ব্যবহার করে RNA সংশ্লেষিত হয় । RNA 5 প্রান্ত থেকে 3 প্রান্তের দিকে সংশ্লেষণ ঘটে।এ কাজে ATP ব্যবহৃত হয়।

গ) RNA সংশ্লেষণ শেষ হলে রোফ ফ্যাক্টরের সংকেত RNA- polymerase এবং RAN মুক্ত হয়।

ঘ) ট্রান্সক্রিপশন খুব দ্রুতগতিতে ঘটে , প্রতিসেকেন্ডে প্রায় ৪০ টি নিউক্লিওটাইড RNA চেইনে যুক্ত হয়।

৩) চিত্রসহ RNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়া।

ট্রান্সলেশনঃ DNA এর ভাষাকে mRNA এর মাধ্যমে প্রোটিনের ভাষার রূপান্তর করাকে ট্রান্সলেশন বলে । অর্থাৎ mRNA থেকে প্রোটিন তৈরির প্রক্রিয়াকে ট্রান্সলেশন বলে। ট্রান্সলেশন রাইবো জোমে ঘটে । 

ট্রান্সলেশন প্রক্রিয়ার mRNA,tRNA বিভিন্ন থ্যামাইনো এসিড ভূমিকা রাখে। নিচে ট্রান্সলেশন প্রক্রিয়ার ধাপগুলো উল্লেখ করা হলো।

ক) প্রথমে থ্যামাইনো এসিড মিন্হেটেজোর প্রভাবে সাইটোপ্লাজামে বিদ্যমান বিভিন্ন থ্যামিনো এসিড ATP এর সাথে যুক্ত হয়ে সক্রিয় হয় এবং tRNA এর 3 প্রান্তের সাথে যুক্ত হয়ে যোগ গঠন করে।

খ) রাইবোজোমের সাথে RNA যুক্ত হয়। এ ক্ষেত্রে রাইবোজোমের বড় এককটি এসে যোগের সাথে যুক্ত হয়। বড় একক দুটি সাইট থাকে যথা –A সাইট, p সাইট, tRNA প্রথমে A সাইট যুক্ত হয়ে পরে A সাইট খালি P সাইটে চলে থামে।খালি A সাইট পুনরায় একটি থ্যামাইনো এসিড সহ tRNA যুক্ত হয়।

গ) একইভাবে tRNA একটি করে থ্যামিনো এসিড অনু সংযুক্ত হয়ে যখন প্রোটিন mRNA এর কাছে আনে mRNA এর যুক্ত করে মুক্ত হয়।

ঘ) এভাবে mRNA তে অসংখ্য থ্যামিনো এসিড অনু সংযুক্ত হয়ে যখন প্রোটিন অনু তেরি হয় ,তখন রাইবেজোমের mRNA হতে প্রোটিন অনু যুক্ত হয়ে কোষের সাইটো প্লাডামে যুক্ত হয়।

ঙ) পরবর্তীতে রিলিজা ফ্যাক্টর পলিপেপা টাইড শৃঙ্খল মুক্ত করে এবং mRNA রাইবোসোম ত্যাগ করে। ।ভাবে ট্রান্সলেশন প্রক্রিয়া চরতে থাকে।

 

Answered question
Add a Comment
Write your answer.