AssignmentExam Preparation

HSC Diploma In Commerce Bangla Assignment Answer

HSC DIC Assignment Answer For Bangla

HSC Diploma In Commerce Bangla Assignment Answer, HSC DIC Assignment Answer For Bangla, xi class final exam assignment, Class 11 assignment, Assignment 1st upload solution, HSC DiC Solution 2021.

কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বাের্ডের অধীন ডিপ্লোমা ইন কমার্স শিক্ষাক্রমের একাদশ শ্রেণির বাের্ড ফাইনাল পরীক্ষা-২০২০ এর ফলাফল এ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে প্রক্রিয়াকরণের জন্য নির্ধারিত কাজ ও মূল্যায়ন নির্দেশনা:

শিক্ষাক্রম: ডিপ্লোমা ইন কমার্সবিষয়: বাংলা-১ (১৭১১)তত্ত্বীয় চূড়ান্ত মূল্যায়নের পূর্ণ নম্বর:৬০
এ্যাসাইনমেন্ট ক্রম:

ডিআইসি-০১ (ক)

জমা দেওয়ার শেষ তারিখ:২৭-০১-২০২১

মুল্যায়ন নির্দেশক

  • সৃজনশীল প্রশ্নোত্তোর মূল্যায়ন নির্দেশনা অনুসরণ
  • বিষয়বস্তুর সঠিকতা
  • সঠিক সিদ্ধান্ত
  • নিজস্বতা/স্বকীয়তা/সৃজনশীলতা

অধ্যায় ও বিষয়বস্তুর শিরােনাম

এ্যাসাইনমেন্ট/নির্ধারিত কাজ

গদ্য: হৈমন্তী

১. মিজান একজন উচ্চ শিক্ষিত ছেলে। কম্পিউটার সাইন্সে পড়ালেখা শেষ করেছে। চাকরির জন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে আবেদন করে যাচ্ছে। এ সময় তার আব্বা-আম্মা তার বিয়ে | ঠিক করে। বিয়েতে তার আব্বা কন্যাপক্ষের কাছে দশ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে। বিষয়টি মিজান জানলেও কোন প্রতিবাদ করে না।

ক. হৈমন্তীর পিতার পেশা কী ছিল?

খ. ‘মনে বুঝিলাম ইহারা অন্য জাতের মানুষ’- উক্তিটির অর্থ বুঝিয়ে দাও?

গ. উদ্দীপকের মিজান ও হৈমন্তী গল্পের অপুর মধ্যে কী মিল আছে আলােচনা কর।

ঘ. উদ্দীপকের মিজানের মানসিকতা ও হৈমন্তী গল্পের অপুর মানসিকতা একই বলে তুমি মনে কর কী? উক্তিটির বিশ্লেষণধর্মী মতামত দাও?

পদ্য: পাঞ্জেরী

২। দুর্গমগিরি, কান্তার মরু দুস্তর পরবার, লঙ্ঘিতে হবে রাত্রি নিশিথে যাত্রীরা হুশিয়ার! দুলিতেছে তরী, ফুলিতেছে জল, ভুলিতেছে মাঝি পথ | ছিড়িয়াছে পাল, কে ধরিবে হাল আছে কার হিম্মৎ! কে আছাে জোয়ান, হও আগুয়ান হাঁকিছে ভবিষ্যৎ এ তুফান ভারী, দিতে হবে পাড়ি নিতে হবে তরী পার।

ক. পাঞ্জেরী’ শব্দটির অর্থ কী?

খ. এখনাে তােমার আসমান ভরা মেঘে’ – উক্তিটি দিয়ে কী বােঝানাে হয়েছে?

গ. উদ্দীপকের সাথে পাঞ্জেরী’ কবিতার সাদৃশ্য নিরুপন কর।

ঘ. কে আছাে জোয়ান হও আগুয়ান’ – এই লাইনটির সাথে পাঞ্জেরী’ কবিতার ভাববস্তু বিশ্লেষণ কর।

উপন্যাস: পদ্মা নদীর মাঝি

৩। আমার বিবাহে আমার শ্বশুর পনেরাে হাজার টাকা নগদ এবং পাঁচ হাজার টাকার গহনা দিয়েছিলেন। বাবা তাহার এক দালাল বন্ধুর কাছে খবর পাইয়াছেন ইহার মধ্যে। পনেরাে হাজার টাকাই ধার করিতে হইয়াছে।

ক. ‘গােপী’ কে ?

খ. হােসেন মিয়াকে রহস্যময় লােক বলা হয়েছে কেন?

গ. উদ্দীপকের পন প্রথার কাছে পদ্মা নদীর মাঝি’ উপন্যাসের পন প্রথার যে বৈষম্য দেখা যায় তা নিরুপণ কর।

ঘ. উদ্দীপকে উল্লিখিত পন প্রথার কারণ এবং তা থেকে উত্তরণের উপায় ‘পদ্মা নদীর মাঝি’ উপন্যাসের আলােকে বিশ্লেষণ কর।

এ্যাসাইনমেন্ট ক্রম:

ডিআইসি-০১ (খ)

জমা দেওয়ার শেষ তারিখ:২৭-০১-২০২১

মুল্যায়ন নির্দেশক

    • সৃজনশীল প্রশ্নোত্তোর মূল্যায়ন নির্দেশনা অনুসরণ
    • বিষয়বস্তুর সঠিকতা
    • সঠিক সিদ্ধান্ত
    • নিজস্বতা/স্বকীয়তা/সৃজনশীলতা

অধ্যায় ও বিষয়বস্তুর শিরােনাম

এ্যাসাইনমেন্ট/নির্ধারিত কাজ।

গদ্য : বিলাসী

১। সৌদামিনী মালাে স্বামীর মৃত্যুর পর উত্তরাধিকার সূত্রে ধানি জমি, বসত বাড়ি, পুকুরসহ কয়েক একর সম্পত্তির মালিক হয়। এই সম্পত্তির ওপর নজর পড়ে তার দেবর মনােরঞ্জনের। সে সম্পত্তি দখলের নানা কৌশল অবলম্বন করে। একবার দুর্ভিক্ষের সময় ধানখেতের পাশে সৌদামিনী একটি মানবশিশু খুঁজে পায়। শিশুটিকে সে পরম যত্নে লালন পালন করে। মনােরঞ্জন সৌদামিনীকে সমাজচ্যুত করতে প্রচার করে যে, নম শুদ্রের ঘরে ব্রাহ্মণ সন্তান পালিত হচ্ছে। এ  যে মহাপাপ; হিন্দু সমাজে জাত-ধর্ম শেষ হয়ে গেল।

ক. বিলাসীর পেশা কী ছিল?

খ. মৃত্যুঞ্জয়ের জাত বিসর্জনের কারণ বর্ণনা কর।

গ. ‘সৌদামিনী’ চরিত্রের কোন বৈশিষ্ট্যটি বিলাসীর চরিত্রের সাথে মিলে যায়? ব্যাখ্যা কর।

ঘ. ‘মনােরঞ্জন যেন ‘বিলাসী’ গল্পের খুড়ারই প্রতিচ্ছবি’ – বিষয়টি মূল্যায়ন কর।

পদ্য : সােনার তরী

২. মহাকালের চিরন্তন স্রোতে মানুষ অনিবার্য বিষয়কে এড়াতে পারে না। মানুষ মরণশীল। আর কাল নিরবধি। সেই কালের ধারায় মানুষ আসে আবার চলে যায়। কেবল টিকে থাকে তার কর্ম। মানুষ নিজে বেঁচে থাকতে না পারার অতৃপ্তি তাকে ব্যথিত করে। আর তাকে অপেক্ষা করতে হয় অনিবার্যভাবে মহাকালের শূন্যতায় বিলীন হওয়ার জন্য।

ক. ‘সােনার তরী’ কবিতাটি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কোন কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত?

খ. ‘শূন্য নদীর তীরে রহিনু পড়ি উক্তিটি দিয়ে কবি কী বলতে চেয়েছেন?

গ. উদ্দীপকে সােনার তরী কবিতায় আংশিক বক্তব্য ফুটে উঠেছে”-উক্তিটি ব্যাখ্যা কর।

ঘ. উদ্দীপকের আলােকে ‘সােনার তরী’ কবিতার ভাববস্তু বিশ্লেষণ কর।

উপন্যাস: পদ্মা নদীর মাঝি

৩. রশিদ মিয়া একজন বর্গাচাষী। অন্যের জমিতে কঠোর পরিশ্রম করে সে ফসল ফলায়। ফসলের অর্ধেক অংশ জমির মালিক ও বাকি অর্ধেক সে পায়। কিন্তু ক্ষেতের মালিক নানা কৌশলে রশিদ মিয়াকে ঠকিয়ে ফসলের সিংহভাগ কেড়ে নেয়। গরীব চাষীর রক্ত চুষে এরা ফুলে ফেঁপে উঠে। কিন্তু চলতে পারে না একদিন তারা রুখে দাঁড়ায় শােষক জোতদারদের বিরুদ্ধে।

ক. কুবের কে?

খ. “ইলিশের মৌসুম ফুরাইলে বিপুলা পদ্মা কৃপন হইয়া যায়”- পদ্মা কেন কৃপন হয়ে যায়?

গ. রশিদ মিয়ার মানসিকতার সাথে কুবের মাঝির মানসিকতার কতটুকু মিল রয়েছে? ব্যাখ্যা কর।

ঘ. “প্রেক্ষাপট ভিন্ন হলেও রশিদ মিয়া ও কুবের শ্রমজীবী মানুষের প্রতিনিধিত্ব করেছে”। উক্তিটির তাৎপর্য বিশ্লেষণ কর।

HSC Diploma In Commerce Bangla Assignment

HSC Diploma Bangla Assignment 1 HSC Diploma Bangla Assignment 2

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *