যৌন হয়রানি বা যৌন নিপীড়নের শিকার হলে কী কী সাবধানতা অবলম্বন করা প্রয়োজন?

0

যৌন হয়রানি বা যৌন নিপীড়নের শিকার হলে কী কী সাবধানতা অবলম্বন করা প্রয়োজন? Class 8 Home Science 6th Week Assignment Answer. ক্লাস ৮ এর গার্হস্থ্য বিজ্ঞান ষষ্ঠ সপ্তাহের এসাইনমেন্ট সমাধান। Oshtom Srenir (Class8) Garhosto Biggan 6 Soptaher Assignment Er Uttor ba Somadhan. Class Eight 2nd & Last Domestic Science Assignment Solve 2020.

Currently sexual harassment or sexual harassment is a serious social problem. In most cases, even if a child is sexually abused or sexually harassed, it is not very public. But many cases of sexual harassment due to social media are coming up in front of us. Analyzing all these incidents of sexual harassment, it is seen that children are being sexually abused by the known folk zones around them. Many incidents of sexual harassment have come before us. Such children are being sexually harassed by their close relatives. However, many cases of sexual harassment show that girls are more likely to be sexually harassed than talented boys. In many places, students are also victims of sexual harassment by teachers.

We need to free our society from this terrible clutches of sexual harassment. That is why people of all classes and professions need to be made aware of this issue. We have to deal with this problem religiously and socially. This question asks to describe the kind of precautions a child or student needs to take when being sexually harassed or sexually harassed. It is important to describe the precautions that can be taken to avoid such sexual harassment or sexual harassment. In this case at least five precautions have to be prescribed and explained.

 

যৌন হয়রানি বা যৌন নিপীড়নের শিকার হলে কী কী সাবধানতা অবলম্বন করা প্রয়োজন?

 

বর্তমানে যৌন হয়রানি বা যৌন নিপীড়ন একটি মারাত্মক সামাজিক সমস্যা। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই কোন শিশু যৌন নিপীড়ন বা যৌন হয়রানির শিকার হলেও তা খুব একটা প্রকাশিত হয় না। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ার কারণে যৌন হয়রানির অনেক ঘটনায় আমাদের সামনে উঠে আসছে। এসকল যৌন হয়রানির ঘটনা গুলো বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় যে শিশুরা তাদের আশেপাশের পরিচিত লোকজোনের দ্বারাই যৌন নিপীড়নের শিকার হচ্ছে। যৌন হয়রানির অনেক ঘটনাই আমাদের সামনে উঠে এসেছে। যেমন শিশুরা তাদের নিকট আত্মীয়ের কাছে যৌন হয়রানির শিকার হচ্ছে। তবে যৌন হয়রানির অনেকগুলো কেস স্টাডি করে দেখা যায় যে, বখাটে ছেলেদের কাছে যৌন হয়রানির শিকার বেশি হচ্ছে মেয়েরা। আবার অনেক জায়গায় শিক্ষকদের কাছে যৌন হয়রানির শিকারও হচ্ছে ছাত্রীরা।

যৌন হয়রানির এই ভয়ঙ্কর থাবা থেকে আমাদের সমাজকে মুক্ত করতে হবে। সেজন্য সকল শ্রেণী-পেশার মানুষকে এই বিষয়ে সচেতন করতে হবে। এই সমস্যাটি আমাদের ধর্মীয় ও সামাজিকভাবে মোকাবেলা করতে হবে। এই প্রশ্নের যৌন হয়রানি বা যৌন নিপীড়নের শিকার হলে একজন শিশু বা ছাত্রীর যে ধরনের সাবধানতা অবলম্বন করা প্রয়োজন তা বর্ণনা করতে বলা হয়েছে। যে সকল বিষয়ে সাবধানতা অবলম্বন করলে এ ধরনের যৌন হয়রানি বা যৌন নিপীড়ন থেকে রক্ষা পাওয়া যায় তা বর্ণনা করতে হবে। এক্ষেত্রে কমপক্ষে পাঁচটি সাবধানতা নির্ধারণ করে তা ব্যাখ্যা করতে হবে।

এ্যাসাইনমেন্ট / নির্ধারিত কাজ ২

৩। যৌন হয়রানি বা যৌন নিপীড়নের শিকার হলে কী কী সাবধানতা অবলম্বন করা প্রয়োজন?

উত্তরঃ

যৌন বিষয়ক কথা ইঙ্গিত অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি দিয়ে কাউকে বিরক্ত করা হলো যৌন হয়রানি। যেকোনো বয়সে যৌন হয়রানি ও যৌন নিপীড়নের ঘটনা ঘটতে পারে আমাদের চারপাশের যৌন নিপীড়নের যেসব করুণ চিত্র চলছে সেগুলোর পরিণতি খুবই বেদনাদায়ক যেকোনো নিকটাত্মীয় পরিচিত ব্যক্তি বয়স্ক যেকোনো সদস্যদের যৌন হয়রানি বা যৌন নিপীড়নের শিকার হতে পারে। এক্ষেত্রে আমাদের যে বিষয়গুলো সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে সেগুলো হলোঃ

  • বাড়িতে কখনোই একা না থাকা।
  • অন্যকে আকর্ষণ করে এমন পোশাক না পরা।
  • পরিচিত বা অপরিচিত ব্যক্তি গায়ে হাত দিলে তাকে এড়িয়ে যাওয়া বা তাকে পরিত্যাগ করা।
  • পরিচিত অপরিচিত কারো সাথে একা বেড়াতে না যাওয়া।
  • মন্দ স্পর্শ টের পেলে অবশ্যই তা সঙ্গে সঙ্গে বাবাকে জানানো।
  • পাড়ার বখাটে দলের হয়রানিতে সরাসরি প্রতিক্রিয়া করে কৌশলে উপেক্ষা করা যেমন জুতা খুলে দেখানো দেখানো গালাগালি দিন তা না করে বুদ্ধি দিয়ে পরিস্থিতি সামলানো।

Class 8 Home Science 6th Week Assignment Answer

যৌন নিপীড়ন সম্পর্কে পাঠ্য বই থেকে বিস্তারিত জানুন:

পাঠ-৩: যৌন নিপীড়ন

সাধারণত যৌন বিষয়ক কথাবার্তার মধ্যে একটু গােপনীয়তা, একটু সংকোচ জড়িয়ে থাকে। আমাদের চারপাশে যৌন নিপীড়নের যেসব করুণ চিত্র ঘটে চলেছে, সেগুলাের পরিণতি হয় খুবই বেদনাদায়ক। এসব প্রতিকূল অবস্থা থেকে নিজেকে রক্ষা করা ও অন্যদেরকে সতর্ক করা খুবই জরুরি। কী করলে যৌন | নিপীড়নের মতাে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা থাকবে না তা জানতে হবে। তাই সুস্থ স্বাভাবিক জীবনের লক্ষ্যে এ পাঠটিকে তােমরা অত্যন্ত জরুরি একটি পাঠ মনে করবে। যৌন নিপীড়ন সম্পর্কে সকলকে সচেতন করার জন্য এ পাঠটির গুরুত্ব অনেক বেশি।

যৌন বিষয়ক কথা, ইঙ্গিত, অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি দিয়ে কাউকে বিরক্ত করা হলাে যৌন হয়রানি। আর অন্যের দ্বারা শরীরের গােপন অংশে স্পর্শ বা আঘাত যৌন নিপীড়নের মধ্যে পড়ে। বয়ঃসন্ধিকালে বিপরীত লিঙ্গের প্রতি আকর্ষণ ও যৌন বৈশিষ্ট্যের কারণে অনেক সময় অনেক বিপজ্জনক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

ফাইনাল পরীক্ষা শেষ। কয়েকদিনের জন্য রাশেদা বেড়াতে এসেছে আত্মীয়ের বাড়িতে। কিশােরী রাশেদার আনন্দ আর ধরে না। বিকাল হতে না হতেই পাশের বাড়ির পরিচিত ভাইয়ের সাথে ঘুরতে বের হয় সে। নদীর পাড়ের বাঁধা রাস্তার পাশ দিয়ে আখের ক্ষেত, নদীর সৌন্দর্য, মাঝি, নৌকা ইত্যাদি উপভােগ করতে করতে প্রায় সন্ধ্যা হয়ে যায়। ফেরার পথে কিশাের ছেলেটির মাথায় খারাপ চিন্তা আসে। সে রাশেদার হাতটি ধরে এবং কাছে আসতে চায়। রাশেদা সজোরে হাত ছাড়িয়ে নেয় এবং দ্রুত হেঁটে নিজেকে রক্ষা করে। ঘটনাটি সে কাউকে বলতে পারে না। প্রায়ই ঘটনাটি তার মনে কষ্ট দেয়। রাস্তায় যে কোনাে কিশাের দেখলে ভয়ে চমকে উঠে। তােমরা কি কখনাে ভেবে দেখেছ যে, এরকম পরিস্থিতিতে তােমরাও পড়তে পার?

যে কোনাে বয়সে যৌন হয়রানি ও যৌন নিপীড়নের মতাে ঘটনা ঘটতে পারে। তবে কৈশােরে এসব ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা অন্য সব বয়সের চেয়ে বেশি থাকে। যারা যৌন হয়রানি বা নিপীড়নের শিকার হয় তাদের মধ্যে অনেক ধরনের প্রতিক্রিয়া হতে পারে

  • সব সময় ঐ ঘটনা মনে পড়তে থাকে, মন থেকে আতংক বা ভয় দূর হয় না।
  • কাউকে বলতে না পারায় মানসিক চাপ পড়ে, ফলে পড়াশােনায় মনােযােগ আসে না।
  • অনেক ক্ষেত্রে লজ্জা ও অপমান সহ্য করা নিজের ও পরিবারের জন্য কষ্টদায়ক হয়।

আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে কৈশোরে ছেলেমেয়েদের যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন এর ঝুঁকি বেশি থাকে। পাড়ার বখাটের দল কিংবা সহপাঠীদের দ্বারা যৌন হয়রানির মতো ঘটনা ঘটতে পারে। কিন্তু যৌন নিপীড়ন সমবয়সী ছাড়াও নিকট আত্মীয়, পরিচিত ব্যক্তি, বয়স্ক যে কোনাে সদস্যদের দ্বারা হতে পারে। এসব প্রতিকূল অবস্থা থেকে নিজেদের রক্ষা করার জন্য আমাদের সাবধানতা অবলম্বন করা প্রয়ােজন। আমাদের যে যে বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে সেগুলাে হলাে

  • বাড়িতে একা থাকলে সাবধানে থাকা
  • পরিচিত, অপরিচিত কারও সাথে একা বেড়াতে না যাওয়া
  • মন্দ স্পর্শ টের পেলে অবশ্যই তা সঙ্গে সঙ্গে মা-বাবাকে জানানাে
  • কোনাে হয়রানির সম্মুখীন হলে কৌশলে পরিস্থিতি মােকাবিলা করা এবং বাবা-মা, শিক্ষক ও আপনজনকে জানানাে

যৌন নিপীড়নের আর এক ধরনের ভয়ংকর চিত্র তােমাদের জানা দরকার। অনেক সময় শৈশবের ছেলেমেয়েরা পরিবার ও সমাজের বয়স্ক সদস্য কর্তৃক যৌন নিপীড়নের শিকার হয়। পরিবারের খুব কাছের আত্মীয় বা পরিচিত ব্যক্তি শিশুটিকে যে কোনাে সময়ে একা পেয়ে এ ধরনের গর্হিত কাজ করতে পারে। ব্যক্তিটির সাথে পরিবারের সম্পর্ক খুব ঘনিষ্ট থাকে বলে তার সাথে সন্তান একা বাড়িতে থাকলে মা-বাবার কোনাে রকম দুশ্চিন্তা হয় না। ছেলে শিশুরাও পুরুষ ব্যক্তির দ্বারা শরীরের গােপন অঙ্গে আঘাপ্রাপ্ত হতে পারে। এ ধরনের নিপীড়নে শিশুরা প্রচণ্ড ভয় পায়। অপরাধী শাসায় বলে তারা বিষয়টি কাউকে বলতে পারে

এতে তাদের নানা ধরনের মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দিতে পারে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমাদের সমাজে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে যে নিপীড়নের শিকার হয় তাকেই দোষারােপ করা হয়। আমাদের উচিত অপরাধীর মুখােশ সকলের কাছে খুলে দেওয়া এবং তার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়া। শিশুদের জন্য নিরাপদ পরিবেশ তৈরি করার দায়িত্ব প্রত্যেক মা-বাবার এবং আমাদের সকলের।

Changed status to publish
Add a Comment
Write your answer.