নারীর প্রতি সহিংসতামূলক আচরণের কারণগুলাে বর্ণনা কর। এই ধরনের সহিংসতা রােধে তােমার নিজের পরিবার ও এলাকার দৃষ্টিভঙ্গির উন্নয়নে কী কী পদক্ষেপ নেয়া যায়? যে কোনাে একটি পদক্ষেপ বাস্তবায়নের জন্য একটি বিস্তারিত পরিকল্পনা প্রণয়ন কর।

0

নারীর প্রতি সহিংসতামূলক আচরণের কারণগুলাে বর্ণনা কর। এই ধরনের সহিংসতা রােধে তােমার নিজের পরিবার ও এলাকার দৃষ্টিভঙ্গির উন্নয়নে কী কী পদক্ষেপ নেয়া যায়? যে কোনাে একটি পদক্ষেপ বাস্তবায়নের জন্য একটি বিস্তারিত পরিকল্পনা প্রণয়ন কর। Class 9 Bangladesh & Global Identity 6th Week Assignment Answer, বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় ষষ্ঠ সপ্তাহের এসাইনমেন্ট সমাধান। BD O Bisso Porichoi, 3rd Assignment of Bangladesh and World Identity For Class 9.

Describe the causes of violence against women. What steps can be taken to improve the attitude of Tayma’s own family and area in the face of such violence? Make a detailed plan to implement a step in that direction.

 

নারীর প্রতি সহিংসতামূলক আচরণের কারণগুলাে বর্ণনা কর। এই ধরনের সহিংসতা রােধে তােমার নিজের পরিবার ও এলাকার দৃষ্টিভঙ্গির উন্নয়নে কী কী পদক্ষেপ নেয়া যায়? যে কোনাে একটি পদক্ষেপ বাস্তবায়নের জন্য একটি বিস্তারিত পরিকল্পনা প্রণয়ন কর।

অধ্যায় ও বিষয়বস্তুর শিরোনাম

ষোড়শ অধ্যায়: বাংলাদেশের সামাজিক সমস্যা ও এর প্রতিকার

  • পাঠ-১ সামাজিক নৈরাজ্য ও মূল্যবােধের অবক্ষয়
  • পাঠ-২ নারীর প্রতি সহিংসতা

এ্যাসাইনমেন্ট / নির্ধারিত কাজ ৩

নারীর প্রতি সহিংসতামূলক আচরণের কারণগুলাে বর্ণনা কর। এই ধরনের সহিংসতা রােধে তােমার নিজের পরিবার ও এলাকার দৃষ্টিভঙ্গির উন্নয়নে কী কী পদক্ষেপ নেয়া যায়? যে কোনাে একটি পদক্ষেপ বাস্তবায়নের জন্য একটি বিস্তারিত পরিকল্পনা প্রণয়ন কর।

উত্তরঃ “নারী” দুই অক্ষরের এই শব্দের মাঝেই রয়েছে অপরিসীম ক্ষমতা। আমাদের সমাজের অর্ধেক অংশ ধারণকারী। একটি উন্নত দেশের কারিগর হিসেবে যরা পরিচিত তারা যখন সমাজের এক শ্রেণির বিকৃতমনা মানুষদের হাতে নিযাতিত হয় সেটি হয়ে যার চিন্তার কারণ। নারীর প্রতি শ্রদ্ধাশীল মনোভাব পোষণও শালীনতা রক্ষা করে চলা সৎ চরিত্রের অন্যতম গুণ। কাজী নজরুল ইসলাম বলেছেন, পৃথিবীতে যা কিছু মহান চিরকল্যাণকর অধেক তার করিয়াছে নারী অধেক তার নর। একটি সমাজ গড়ে ওঠে নারী পুরুষের সমান অংশগ্রহণে। অতীত কাল থেকে আমরা সমাজে নারীর প্রতি অবহেলা বঞ্চনা প্রতারন ও নিযাতনের চিত্র দেখে অসছি।

ধষর্ণঃ ধর্ষন এক প্রকার যৌন নিযাতন। নারীর ইচ্ছা বা অনুমতি ব্যাতিরেকে জোরপূবক তার সাথে যৌন সংগমে লিপ্ত হওয়া কে ধর্ষন বলে। নারী কে হের করে অপহরন করে দল বেধে ধারাবাহিক ভাবে ধর্ষণ করা হয়। এমনকি অত্যাচার করা হয়।

এডিস নিক্ষেপ: এসিড নিক্ষেড হলো নারীকে এসিড বা এই জাতীয় পদার্থ তার চেহারা বা শরীরে ছুড়ে মারা। যার ফলে অনেকের মৃত্যু ঘটে।

নারী হত্যা: নারী সহিংসতার উল্লেখযোগ্য একটি চিত্র এদেশে নারী হত্যা। নারী হত্যা বিভিন্ন উপায়ে সংঘটিত হয়ে থাকে।

গৃহকর্মী নিযাতন: গৃহকমীরাও মানুষ। তাই তাদের প্রতি নিযাতন ও সহিংসতার মমান্তর। গৃহকমী সহিংসতা অত্যান্ত ঘৃণিত। নারী পুরুষ সমতা রুখতে পারে সহিংসতা নারীকে প্রতিপাদ্য করে বাংলাদেশে পালিত হচ্ছে আন্তজাতিক নারী নিযাতন প্রতিরোধ পক্ষ ২০১৯। নারীদের নিয়ে কাজ করা সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান গুলো প্রতিবছর পক্ষটিকে গুরুত্বের সাথে পালন করে থাকে। এতো পদক্ষেপ সত্ত্বেও যৌন হয়রানি ধর্ষণ গনধর্ষণ ধর্ষনের পর হত্যা শারীরিক নিযাতন হয় এবং হচ্ছে। ক্রমাগত বেড়েই চলছে। প্রতিবছরের ২৫ নভেম্বর থেকে ১০ ডিসেম্বর পযন্ত আন্তজাতিক নারী নিযাতন প্রতিরোধ পক্ষ পালিত হয়। সংহিসতা থেকে বেঁচে থেকে সুন্দরও স্বাভাবিক জীবনযাপন করা নারীদের অধিকার। তাই নিরাপদ ও সহিংসতা মুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত করতে সরকারি বেসরকারি সকল সংস্থাসমূহের নি:স্বার্থ সহযোগিতা প্রয়োজন। আমরা সকলেই নারী নিযাতন ও সহিংসতা কে না বলি।

Changed status to publish
Add a Comment
Write your answer.