Quiz

হত্যাকাণ্ডের সময় তাঁরা (শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা) কোন দেশে অবস্থান করছিলেন?

১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্ট শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা কোন দেশে অবস্থান করছিলেন?

হত্যাকাণ্ডের সময় তাঁরা (শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা) কোন দেশে অবস্থান করছিলেন? ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্ট নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়ে শাহাদতবরণ করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুননেছাসহ পরিবারের অধিকাংশ সদস্য। বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ কন্যা বর্তমানে বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা সেই সময় বিদেশে অবস্থান করায় ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান। হত্যাকাণ্ডের সময় তাঁরা কোন দেশে অবস্থান করছিলেন?

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে কিুইজ প্রকিযোগিতার আয়োজন করা রয়েছে। এই কুইজ ১০০ দিন ধরে চলবে। প্রিয় ডট কম এই কুইজ প্রতিযোগিতাটি পরিচালনা করছে। প্রতিদিন ১০০জন করে বিজয়ী হবেন এবং অনেক পুরুস্কার রয়েছে।

বঙ্গবন্ধু কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করা খুবই সহজ। আপনিও চাইলে কুইজের উত্তর দিয়ে জিতে নিতে পারেন ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন সহ ১০০ জিবি মোবাইল ডাটা। প্রিয় কুইজে অংশ নিতে এবং প্রশ্নের উত্তর দিতে মাত্র ৩০ সেকেন্ড সময় লাগবে। তাই আর দেরি না করে আজকের প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দিন।

২৪-০২-২০২১, আজকের প্রশ্ন হলো:

হত্যাকাণ্ডের সময় শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা কোন দেশে অবস্থান করছিলেন?

হত্যাকাণ্ডের সময় তাঁরা (শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা) কোন দেশে অবস্থান করছিলেন? ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্ট নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়ে শাহাদতবরণ করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুননেছাসহ পরিবারের অধিকাংশ সদস্য। বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ কন্যা বর্তমানে বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা সেই সময় বিদেশে অবস্থান করায় ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান। হত্যাকাণ্ডের সময় তাঁরা কোন দেশে অবস্থান করছিলেন?

  1. রাশিয়া
  2. বেলজিয়াম
  3. ভারত
  4. ফ্রান্স

উত্তরঃ হত্যাকাণ্ডের সময় শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা বেলজিয়ামে অবস্থান করছিলেন? দীর্ঘ স্মৃতিচারণে শেখ রেহানা জানান, ১৫ আগস্ট কালোরাতের সেই হত্যাকাণ্ড সময় বোন শেখ হাসিনা পরিবারের সাথে তিনি ব্রাসেলসে অবস্থান করছিলেন। দুলাভাই ড. ওয়াজেদ মিয়া তখন জার্মানির কার্লসওয়েতে বসবাস করতেন। স্বামীর সাথে স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্যে বোন শেখ হাসিনা যখন জুলাই মাসের শেষের দিকে জার্মানিতে আসেন, তখন তাঁর সাথে বেড়াতে আসেন তিনি। ১৫ আগস্ট তাঁরা ব্রাসেলসে ছিলেন, এমনটি জানিয়ে শেখ রেহানা বলেন, ‘দুলাভাইয়ের ছুটিতে আমরা বেড়াতে আসি ব্রাসেলসে। উঠি ব্রাসেলসে নিযুক্ত বাংলাদেশের তৎকালীন রাষ্ট্রদূত সানাউল হকের বাসায়।’

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট এক সামরিক অভ্যুত্থানে তিনি ও তার বোন শেখ রেহানা বাদে পরিবারের সকল সদস্যকে হত্যা করা হয়। বোনদ্বয় সেইসময় পড়াশোনার জন্য পশ্চিম জার্মানিতে অবস্থান করছিলেন।

কীভাবে প্রিয় / বঙ্গবন্ধু কুইজে অংশ নিবেন?

বঙ্গবন্ধু কুইজে অংশগ্রহণ করতে হলে আপনার প্রিয়.কমে একটি একাউন্ট লাগবে।

এই ক্ষেত্রে এই লিঙ্কে গিয়ে একটি একাইন্ট তৈরি করুন।

তারপর, আপনার ছবি, নাম, জন্ম তারিখ, ঠিকানা, ইত্যাদি সঠিক তথ্য দিয়ে প্রোফাইল আপডেট করুন।

তারপরে বর্তমান কুইজের প্রশ্ন দেখতে পাবেন। সেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে শেয়ার করুন।

সকল সঠিক উত্তরদ্বাতা দের মধ্যে থেকে লটারি করে বিজয়ীদের নির্বাচন করা হবে।

বঙ্গবন্ধু কুইজের ফলাফল কিভাবে জানবেন?

কুইজের রেজাল্ট বা বিজয়ীদের তালিকা একদিন পরে প্রিয়-ডট-কমে প্রকাশ করা হবে।

৫ জন বিজয়ী পাবেন একটি করে মোবাইল ফোন।

১০০ জন বিজয়ী পাবেন মোবাইল ডাটা।

প্রিয় কুইজের ফলাফল দেখুন এখানে।

Related Articles