Price

মার্সেল ফ্রিজের দাম ২০২২। Marcel ফ্রিজ বাংলাদেশ প্রাইস

মার্সেল ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২২

মার্সেল ফ্রিজের দাম ২০২২। Marcel ফ্রিজ বাংলাদেশ প্রাইস

বর্তমান সময়ে সংসারের জন্য সবচেয়ে প্রয়োজনীয় উপকরণ ফ্রিজ। মানুষের নিত্যদিনের সাথী এখন ফ্রিজ । আপনিও কি ফ্রিজের দাম ও মার্সেল ফ্রিজের নতুন মডেল সম্পর্কে জানতে চান? আপনি কি মার্সেল ফ্রিজের বর্তমান দাম কত জানতে চান? অথবা কিস্তিতে মার্সেল ফ্রিজের কেনার নিয়ম জানতে চান? আপনাদের এইসকল প্রশ্নের সমাধান মার্সেল ফ্রিজের আপডেট দাম ২০২২ নিয়ে হাজির হয়েছি।তাই মার্সেল ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম বা মার্সেল ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২২ সম্পর্কে যানতে এই পোস্টটি পড়তে থাকুন।

 

দেশের অর্থনীতির উন্নয়নের সাথে মানুষের ক্রয় ক্ষ্মতাও বাড়ছে তাই বেশির ভাগ মানুষ এখন বিভিন্ন মাধ্যমে ফ্রিজ কিনছেন। ফ্রিজ যারা কিনছেন তাদের ফ্রিজ কেনার আগে কিছু বিষয়ে সচেতন হতে হবে। প্রথমত, পরিবারের বা আপনার চাহিদা অনুযায়ী ফ্রিজের আকার নির্ধারন করে ফ্রিজ কেনা উচিত। আপনার পরিবারের যদি সদস্য কম হয় তাহলে ছোট ফ্রিজ কিনবেন। এবং পরিবারের যদি সদস্য বেশি হলে বড় ফ্রিজ কিনবেন।

 

আপনার পরিবার ছোট,বড়,মাঝারি যেমনই হোক না কেন, সব কিছুর সমধান আপনি দেশীয় ব্র্যান্ড মার্সেল এর কাছে পাবেন সাশ্রয়ী মুল্যে। সব ধরনের ও সব সাইজের ফ্রিজ মার্সেল উৎপাদন করে। তাই আমরা আজকে আলোচনা করবো মার্সেল ফ্রিজের আপডেট দাম ২০২২ মার্সেল ফ্রিজের কিস্তিতে কেনার নিয়ম বা মার্সেল ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২২ নিয়ে। সকল তথ্য জানতে শেষ পর্যন্ত সাথে থাকুন। 

মার্সেল ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২২

ফ্রিজ কেনার কথা মাথায় আসলেই বেশ কিছু বিষয় নিয়ে মানুষকে দ্বিধায় পড়তে দেখা যায়। প্রথম চিন্তা হয় ফ্রিজের দাম নিয়ে। এর পরেই সবাই চিন্তা করে ফ্রিজের রক্ষণাবেক্ষণ নিয়ে। অনেকেই মনে করেন, ফ্রিজের রক্ষণাবেক্ষণ বেশ ঝামেলাপূর্ণ ও কঠিন কাজ এবং তাঁরা কেনার পর এর সঠিক রক্ষণাবেক্ষণ করতে পারবেন না। আবার আরেকটি ধারণা হচ্ছে, ফ্রিজ চালালে বিদ্যুৎ বিল অনেক বেশি আসে। অথচ বাস্তবে বিষয়গুলো বেশ ভিন্ন। মূলত, ফ্রিজ কেনার আগে ফ্রিজ সম্পর্কে একটু ধারণা রাখলে এসব বিষয় নিয়ে চিন্তায় পড়তে হয় না। তাই সকল তথ্য আপনাদের কাছে সহজে তুলে ধরার জন্যেই আজকের এই পোস্ট।

 

Maecel ফ্রিজ মডেল ২০২২

মার্সেল বর্তমানে বাংলাদেশে বড় এক একটি ইলেক্টট্রনিক পন্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান তাই তাদের পন্য ভান্ডার ও অফুরন্ত। প্রতিনিয়তই মার্সেল তাদের ফ্রিজে বিভিন্ন মডেল যুক্ত করছে এবং বিভিন্ন নতুন নতুন ফিচার যুক্ত করছে। এই নতুন মডেল ও নতুন ফিচার গুলো যদি সংগ্রহ করতে চান তাহলে আপনাকে মার্সেল এর নতুন মডেলের ফ্রিজ কিনতে হবে। তাই এখনে আমরা চেষ্টা করব আপনাদের বিভিন্ন নতুন মডেলের ফ্রিজের সাথে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেওয়ার। যার মাধ্যমে আপনি মার্সেল ফ্রিজ কেনার ক্ষেত্রে সেরা সিদ্ধান্তটি নিতে পারেন।

 

মার্সেল ডিপফ্রিজ প্রাইস ২০২২। মার্সেল ফ্রিজের দাম

ফ্রিজের দাম ব্র্যান্ড এর ওপর অনেকটা নির্ভর করে । বাজারে বর্তমানে ২০২২ সালে যে ফ্রিজ গুলো বাজারে ছেড়েছে মার্সেল আমরা আজকে সেই ফ্রিজ গুলোর দাম নিয়ে আলোচনা করব। যেহেতু আপনারা ফ্রিজ কিনবেন বলে চিন্তা তাই আপনাদের আগের দাম বা পূরনো মডেল বিষয়ে যানিয়ে জানিয়ে কোনো লাভ নেই। আপনাদের জানাতে হবে বর্তমান বাজার মূল্য এবং সেই অনুপাতে কি ধরনের ডিসকাউন্ট এবং কিস্তিতে নিলে কি ধরনের সুবিধা আছে মার্সেল ফ্রিজে। আমরা আমাদের এই পোস্ট জুড়ে এই বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করার চেষ্টা করবো।

 

আজকের মার্সেল ফ্রিজের মূল্য তালিকা। মার্সেল বড় সাইজের এবং দামি ফ্রিজ এর তালিকা

আপনাদের বুঝতে সুবিধার জন্য মার্সেল ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২২ নিয়ে হাজির হয়েছি। এই পোস্টে আমরা আলোচনা করবো মার্সেল দশ,বারো এবং চোদ্দ সেফটি ফ্রিজের দাম নিয়ে। নিচে মার্সেল ফ্রিজের মডেল নাম ও গুনাগুন তুলে ধরা হলোঃ

 MFC-C6E-GDEL – মার্সেল MFC-C6E-GDEL ফ্রিজ এই মডেলের ফ্রিজ দেখতে অনেক সুন্দর।এটিতে রয়েছে ইনভার্টার টেকনোলজি এবং ন্যানো হেলথ কেয়ার টেকনোলজি। এবং আরো আছে সুপার স্লিম গ্লাস ডোর। ৩৮০ লিটার ক্যাপাসিটির এই ফ্রিজটি একটি বড় পরিবারের জন্য যথেষ্ট। আকর্ষনীয় এই ফ্রিজটির মূল্য ধরা হয়েছে মাত্র ৩৯ হাজার ৯০০ টাকা।

 

 2MFC-C6E-GDNE – মার্সেল 2MFC-C6E-GDNE ফ্রিজ এই মডেলের আউটলুক অনেকা সুন্দর করা হয়েছে যা দেখে সত্যিই আপনার মন ছুয়ে যাবে। ফ্রিজটিতে রয়েছে সুপার স্লিম গ্লাস ডোর টেকনোলজি। ১৩.৫ সেফটির এর ফ্রিজটির ধারন ক্ষমতা ৩৮০ লিটার। আর আকর্ষনীয় এই ফ্রিজটির মূল্য ধরা হয়েছে মাত্র ৩৯ হাজার ৩০০ টাকা। তাই বড় পরিবারের জন্যে এই ফ্রিজটি পছন্দের তালিকায় রাখতে পারেন।

 MFC-C4H-NEXX – বাংলাদেশের ফ্রিজ কোম্পানি গুলোর মধ্যে মার্সেল অন্যতম একটি। মার্সেল কোম্পানির যে কয়টি ফ্রিজ রয়েছে। তার মধ্যে মার্সেল MFC-C4H-NEXX এই ফ্রিজটি দেখতে সেরা। দুইটি দারুন কালারে বাজারে রয়েছে এই ফ্রিজটি। আরো রয়েছে ন্যানো হেলথ কেয়ার টেকনোলজি ও ইনভার্টার টেকনোলোজি। এ ফ্রিজ ক্যাপাসিটি ৩৮০ লিটার যা যথেষ্ট ধারন ক্ষমতা সম্পন্ন। আকর্ষনীয় এই ফ্রিজটির মূল্য ধরা হয়েছে মাত্র ৩৩ হাজার ৯০০ টাকা। তাই বড় পরিবারের জন্যে এটিও পছন্দের তালিকায় রাখতে পারেন।

 

মার্সেল ফ্রিজ ১২ সেফটি ফ্রিজের দাম কত

 MFC-C4H-GDEL-XX- মার্সেল উন্নত মানের ফ্রিজ গ্রাহকদের উপহার দেয়ার মাধ্যমে গ্রাহকের মনে যায়গা নিয়েছে তাড়াতাড়ি। মার্সেল MFC-C4H-GDEL-XX ফ্রিজটির বাইরের দরজা কাচের অর্থাৎ গ্লাস ডোর। যাতে করে কোনভাবে বাইরের দরজাতে মরিচা বা দাগ পড়ার কোনো সুযোগ নেই। মার্সেল MFC-C4H-GDEL-XX ফ্রিজে রয়েছে ইন্টালিজেন্ট ইনভার্টার টেকনোলজি এবং ন্যানো হেলথকেয়ার টেকনোলজি। এবং ১২.৫ সেফটির এর ফ্রিজটির ধারন ক্ষমতা ৩৪৮ লিটার। আর আকর্ষনীয় এই ফ্রিজটির মূল্য ধরা হয়েছে মাত্র ৩৬ হাজার ৫০০ টাকা। তাই বড় পরিবারের জন্যে এই ফ্রিজটি পছন্দের তালিকায় রাখতে পারেন। 

মার্সেল MFC-C4H-GDNE-XX – মার্সেল MFC-C4H-GDNE-XX মডেলের এই ফ্রিজটি আমার পছন্দের সেরা একটি ফ্রিজ। গ্লাস ডোর দিয়ে বাইরের ফ্রিজে সুন্দর নকশা করা । এই ফ্রিজেও ব্যবহার করা হয়েছে ন্যানো হেলথ কেয়ার টেকনোলজি। ইন্টালিজেন্ট ইনভার্টার টেকনোলোজি দেওয়া রয়েছে এই ফ্রিজে যা ফ্রিজ থেকে অটোমেটিক কন্ট্রোল করবে। এবং ১২.৫ সেফটির এর ফ্রিজটির ধারন ক্ষমতা ৩৪৮ লিটার। আর আকর্ষনীয় এই ফ্রিজটির মূল্য ধরা হয়েছে মাত্র ৩৬ হাজার ২০০ টাকা।

 

কিস্তিতে মার্সেল ফ্রিজ কেনার নিয়ম

মার্সেল ফ্রিজ কিস্তিতে কিনতে হলে আপনাকে প্রথমে সরাসরি মার্সেল শোরুমে যেতে হবে। তারপরে তাদের সাথে আলোচনা করবেন যে আপনি তাদের থেকে কিস্তিতে ফ্রিজ কিনতে চান। তারপরে সেই শোরুমের সেলস ম্যানই আপনার সব ব্যাবস্থা করে দিবে। তবে ফ্রিজ কেনার ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে ৪০% ডাউন পেমেন্ট করতে হবে। অর্থাৎ ফ্রিজের যে বাজার মূল্য রয়েছে। সেখান থেকে আপনাকে ৪০% টাকা প্রথমেই জমা দিতে হবে এবং পরবর্তীতে বাকি যেই ৬০% টাকা থাকবে সেটা কিস্তিতে পরিশোধ করতে হবে। অনেক সময় কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার ক্ষেত্রে আপনাকে ডিসকাউন্টও প্রদান করা হবে।

 

আশাকরি এই আর্টিকেলটি আপনার উপকার করেছে । শেষ পর্যন্ত সাথে থাকার জন্যে ধন্যবাদ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *