Suggestion

জন্ম নিবন্ধন ভুল সংশোধনের নিয়ম। অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম ২০২২

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার প্রক্রিয়া

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম ২০২২। আপনি কি জন্মনিবন্ধন করতে চাচ্ছেন? বা আপনি কি জন্মনিবন্ধন সংশোধন করতে চাচ্ছেন? কিভাবে জন্মনিবন্ধন সংশোধন করবেন তা ভেবে পাচ্ছেন না? নতুন জন্ম নিবন্ধন কিভাবে করবেন তা জানতে চাচ্ছেন? জন্মনিবন্ধন করা, জন্মনিবন্ধনের ভূল সংশোধন করা এই সকল সমস্যার সমাধান পাবেন আজকের আর্টিকেলে।

আপনার জন্ম নিবন্ধনে কি কোন ধরনের ভুল আছে? জন্ম নিবন্ধনে কোন ভুল থাকলে অনলাইনে তা সংশোধনের জন্য আবেদন করতে পারবেন। জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের সকল আপডেট সব তথ্য, ২০২২ সালের জন্মনিবন্ধন আপডেট তথ্য এখনে পাবেন। কিভাবে সহজে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করা যায়, কিভাবে সহজে জন্মনিবন্ধন আবেদন করবেন বিস্তারিত তুলে ধরা হয়েছে। তাই জন্মনিবন্ধন এর সকল তথ্য জানতে আপনার উপকারে আসবে এই আর্টিকেল।

আমদের জীবনে অনাকাংখিত ভুলবশত এমন ঘটনা ঘটেই থাকে তাহলে আতংকীত হওয়ার কোন কারণ নেই। কারণ পৃথিবীর প্রতিটা সমস্যার সমাধান ও প্রতিকার ও রয়েছে। তেমনি একটি সমস্যা জন্ম নিবন্ধনে ভূল হওয়া। জন্ম নিবন্ধনে ভূল সাধারনত দুইভাবে সংশোধন করা যায়। একটি হল জন্ম নিবন্ধন অফিসে গিয়ে তাদের নিকট থেকে সংশোধিত ফর্ম সংগ্রহ করে তা পূরণ করার মাধ্যমে সম্পন্ন করা যায়। অন্যটি অনলাইন এর মাধ্যমে ঘরে জন্ম নিবন্ধন পত্র সংশোধন করে। তাই অফিসে গিয়ে হয়রানির সিকার না হয়ে ঘরে বসে সহজে ভুল ঠিক করুন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করুন ঘরে বসে অনলাইনে

জন্ম নিবন্ধন আমাদের সকলের জন্য এ অনেক গুরুত্তপুর্ন, তাই নিচের ধাপ অনুসরন করে আপনার জন্মবিনন্ধন সংশোধন করে নেন সহজেই। অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার প্রক্রিয়া জন্ম নিবন্ধনে ভূল সাধারনত দুইভাবে সংশোধন করা যায়। একটি হল জন্ম নিবন্ধন অফিসে গিয়ে তাদের নিকট থেকে সংশোধিত ফর্ম সংগ্রহ করে তা পূরণ করার মাধ্যমে সম্পন্ন করা যায়

অন্যটি অনলাইন এর মাধ্যমে ঘরে জন্ম নিবন্ধন পত্র সংশোধন করে।তাই অফিসে গিয়ে হয়রানির সিকার না হয়ে ঘরে বসে সহজে ভুল ঠিক করুন। যদি আজকের এই আর্টিকেলটি শেষপর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়েন তাহলে অনলাইন থেকে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম ২০২২ সম্পর্কে সকল কিছু জানতে পারবেন ও শিখে নিতে পারবেন। আশা করছি আপনারা ধৈর্য সহকারে পোস্টটি পড়বেন এবং নিজের সমস্যা নিজেই সমাধান করার পদ্ধতি জেনে নিবেন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে কত টাকা লাগে

জন্ম নিবন্ধন দেশের প্রতিটি নাগরিক বা প্রতিটি শিশুর নাগরিক সনদ পত্র। যার মাধ্যমে প্রতিটি নাগরিকের তথ্য সরকারি তালিকায় আসে। জাতিসংঘের শিশু অধিকার আইন ৭ অনুচ্ছেদের ২৯ নং আইনের ভিত্তিতে প্রতিটি নাগরিকের জন্ম সনদ প্রদানের নিয়ম চালু হয়। এবং তা প্রতিটি সরকারকে তাদের নিজস্ব রেজিস্ট্রি খাতায় তালিকায় বিধিবদ্ধ করে রাখতে হয়।

 নিবন্ধন সনদ একটি গুরুত্বপূর্ণ সনদ, যার মাধ্যমে প্রতিটি নাগরিককে তার প্রাথমিক নাগরিকত্ব প্রদান করা হয়। এই জন্ম নিবন্ধন সনদ বিভিন্ন প্রয়োজনে আমাদেরকে ব্যবহার করতে হয়। আমাদের শিক্ষা জীবন থেকে শুরু করে কর্মজীবন পর্যন্ত প্রতিটি পর্যায়ে জন্ম নিবন্ধন সনদের প্রয়োজন পড়ে। তাই এখনি আপনার জন্ম সনদ করিয়ে নিন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি

এই সনদের জন্যে সরকার নির্ধারিত কিছু ফি আছে । কোন কোন কাজের জন্যে কত ফি লাগে তার একটি তালিকা তুলে ধরা হলোঃ

  • জন্ম বা মৃত্যুর ৪৫ (পঁয়তাল্লিশ) দিন পর্যন্ত কোন ব্যক্তির জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন (ফ্রি) 
  • মৃত্যুর বা জন্ম ৪৫ (পঁয়তাল্লিশ) দিন পর হইতে ৫ (পাঁচ) বৎসর পর্যন্ত কোন ব্যক্তির জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন (২৫টাকা) 
  • জন্ম বা মৃত্যুর ৫ (পাঁচ) বৎসর পর কোন ব্যক্তির জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন (সাকুল্যে) (৫০ টাকা) 
  • তারিখ সংশোধনের জন্য আবেদন ফি (১০০টাকা) 
  • জন্ম তারিখ ব্যতীত নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, ঠিকানা ইত্যাদি অন্যান্য তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন ফি (৫০টাকা) 
  • বাংলা ও ইংরেজি উভয় ভাষায় মূল সনদ বা তথ্য সংশোধনের পর সনদের কপি সরবরাহ (ফ্রি) 
  • বাংলা ও ইংরেজি উভয় ভাষায় সনদের নকল সরবরাহ (৫০টাকা)  
  •  

সরকার নির্ধারিত ফি এগুলা হলেও আমদের দেশের অসাধু ব্যাক্তি এর চেয়ে বেশি টাকা দাবি করে। স্থান ভেদে এই টাকার পরিমান অনেক কম বেশি হয়ে থাকে। সরকার নির্ধারিত ফি এগুলা হলেও আমদের দেশের অসাধু ব্যাক্তি এর চেয়ে বেশি টাকা দাবি করে। স্থান ভেদে এই টাকার পরিমান অনেক কম বেশি হয়ে থাকে।

 

জন্ম নিবন্ধন বয়স সংশোধন করার নিয়ম

অনলাইন প্লাটফর্ম থেকে আপনার জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে হলে বাংলাদেশ সরকারের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে হবে। আমরা পূর্বেই বলেছি জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার পদ্ধতি দুটো। একটি হল জন্ম নিবন্ধন অফিস থেকে কাগজ পত্র সংশোধন করে নেওয়া এবং অপরটি হল অনলাইন থেকে সংশোধন করে নেওয়া। নিম্নে অনলাইন থেকে জন্ম নিবন্ধন পত্র সংশোধন করার নিয়ম সম্পর্কে আলোচনা করা হলো:

আপনারা যদি দ্বিতীয় পদ্ধতিটি বেছে নেন অর্থাৎ অনলাইন প্লাটফর্ম থেকে আপনার জন্ম নিবন্ধন ফর্ম যদি সংশোধন করতে চান তাহলে বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব একটি অফিশিয়াল ওয়েবসাইট রয়েছে তাতে আপনারা ভিজিট করুন।আপনাদের সুবিধার্থে আমরা ওয়েব এড্রেস কি দিয়ে দিচ্ছি। ওয়েব এড্রেস টি হল www.bris.gov.bd

এরপরে আপনার ফোন অথাবা কম্পিউটারের যেকোনো ব্রাউজার দিয়ে প্রথমে উপরে দেয়া ওয়েবসাইট টিতে প্রবেশ করুন। যখন এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন তখন আপনাদের সামনে জন্ম নিবন্ধন সংক্রান্ত একটি পেজ চলে আসবে।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার কাগজপত্র

সেখানে প্রবেশের পর ২টি খালি বক্স দেখতে পাবেন। খালি বক্স দুটির মধ্যে একটিতে আপনাদের জন্মনিবন্ধন ফরমের নাম্বার জানতে চাইবে এবং অপর বক্সে জন্মতারিখ জানতে চাইবে। আপনারা সঠিকভাবে এই ২টি তথ্য ওই খালি বক্সে টাইপ করবেন।

জন্ম নিবন্ধন ফরম এর নাম্বার বলতে আমরা বুঝিয়েছি আপনার যে জন্মনিবন্ধন ফরম টিসংশোধন করতে চান সেই ফরমেট বডিতে ১৭ ডিজিটের একটি কোড নাম্বার দেয়া থাকবে। আপনারা উক্ত কোড নাম্বারটি ওই খালি বক্সে পূরণ করবেন এবং সঠিক জন্মতারিখ বসিয়ে দিবেন।

আর মনে রাখবেন জন্ম তারিখের ফরমেট হবে– প্রথমে বছর তারপরে মাস তারপরে তারিখ অর্থাৎ yyyy-mm-dd.আপনারা সঠিকভাবে এদুটো তথ্য পূরণ করে দিয়ে অনুসন্ধান বাটনে ক্লিক করে দেবেন আপনারা যদি সঠিকভাবে তথ্যগুলো দিয়ে থাকেন তাহলে আপনাদেরকে পরবর্তী পেজে নিয়ে যাবে।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম

যদি কোনভাবে আপনারা ভুল তথ্য দেন তাহলে পরবর্তী পেজে আপনাদের কে নিয়ে যাবে না। এবং সেখানে দেখাবে আপনার এই নামে কোন জন্ম নিবন্ধন করা হয়নি এমন একটি তথ্য। আমরা ধরে নিলাম আপনি সঠিক তথ্য দিয়েছেন। এবং পরবর্তী ধাপে বা পরবর্তী পেজে চলে গিয়েছেন। এরপরে আপনারা আপনাদের জন্ম নিবন্ধন এর যাবতীয় তথ্য দেখতে পাবেন।

এখন আপনাদের জন্ম নিবন্ধন পত্র যে অংশে ভুল তথ্য এসে গিয়েছে তা সংশোধন করার জন্য সেই ঘরে গিয়ে ডানদিকে এডিট নামে একটি অপশন পাবেন। সেখানে ক্লিক করলে আপনারা সঠিক তথ্যটি লিপিবদ্ধ করতে পারবেন। এবার সঠিক তথ্যটি লিপিবদ্ধ করে আপনারা সেভ দিয়ে সেখান থেকে বের হয়ে আসবেন। আর এভাবেই আপনারা আপনাদের জন্ম নিবন্ধন পত্র সংশোধন করতে পারবেন। আপনারা চাইলে সেখান থেকে অনলাইন কপি প্রিন্ট ও করতে পারবেন

জন্ম নিবন্ধনে ইংরেজি তথ্য সংযোজন

আগের দিনে করা জন্মনিবন্ধন গুলোতে ইংরেজি তথ্য দেওয়া ছিলনা। তাই পরবর্তীতে অনলাইন ডাটাবেইজ করার প্রয়োজন পড়ার পর ইংরেজি তথ্য সংযোজন করার সুযোগ রাখা হয়েছে। তাই এখনো জন্ম নিবন্ধনে ইংরেজি তথ্য সংযোজন করেননি, অনলাইনে আবেদন করে নিজেই ইংরেজি তথ্য যোগ করে নিতে পারেন।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই

ওপরের তথ্য মতে কাজ করলে আপনি ঘরে বসেই আপনার বা আপনার পরিবারের সদস্যের জন্ম সনদের সকল ভূল সংশোধন করতে পারবেন। এই কারনে আসা করি আজকের আর্টিকেল আপআন্র উপকারে আসবে । শেষ পর্যন্ত থাকার জন্যে ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *